ভিনদেশি ভ্রমণ

মাতাল জ্যাক থেকে হিলারিকে বাঁধল হ্যালুইন

প্রসেনজিৎ সিংহ বেশ কিছু দিন আগে থেকেই দেখছিলাম বিভিন্ন মলে বড় বড় কমলারঙের কুমড়ো বিক্রি হচ্ছে। আমার প্রতিবেশী এলিক উফম্যানকে সেদিন কথায় কথায় জিজ্ঞেস করতে বলল, ‘ও তো হ্যালুইনের জন্য। ওই দিয়েই তো তৈরি হবে ‘জ্যাক-ও –ল্যানটার্ন’। তখন আর বুঝতে অসুবিধা হল না ব্যাপারটা কী। হ্যালুইন নাকি এই ল্যানটার্ন ছাড়া ভাবা যায় না। এলির মুখেই […]

পাহাড়িয়া বাঁশি

পুরুলিয়া-পুটিয়ারি-পাঞ্চেত

রাজর্ষি গঙ্গোপাধ্যায় আচ্ছা ধরুন, আপনার হাতে দু’তিন দিন ছুটি। অনেকদিন একটানা অফিস, বাড়ি করে ক্লান্ত। ভাবছেন, কটা দিন ঘুরে আসা যাক। কোথায় যাবেন? দীঘা? সে তো আপনি অনেকবার গেছেন। এবার একটু অন্য কিছু ভাবুন না। চলুন পুরুলিয়া ঘুরে আসি। লাল মাটির পুরুলিয়া। পলাশ, শিমূলের পুরুলিয়া। এবার যখন বাড়ি থেকে পুরুলিয়া যেতে বলল একটু সংশয় ছিল। […]

জঙ্গল যাপন

ভালকির জঙ্গলে পাঁচমুড়ো

দীপক দাস সমস্যাটা শুরু হয় শুরুতেই। টিকিট কাটা থেকে। আর সেই সমস্যার মূলে আমাদের ইন্দ্রকুমার। ইন্দ্র একাই ‘যথা ইচ্ছা তথা যা’ গ্রুপের প্রথম ভ্রমণের সদস্য সংখ্যা অর্ধেক করে দিয়েছিল। সেবার বাঁকুড়া যাওয়া হবে। দুর্গাপুজোর ষষ্ঠী থেকে অষ্টমী পর্যন্ত। পুজোর সময় তো। অনেকেরই পিছুটান থাকে। দীপু, শুভ সেসব কাটিয়েই সম্মতি দিয়েছিল। ইন্দ্র খুশি মনে টিকিট কাটল। […]

গ্রুপ কথা

সাঁই সাঁঁইয়ের ইতিহাস

একজনের ছুটি মঙ্গলবার। আরেকজনের ওইদিন ব্যবসা বন্ধ। বাকি সদস্যেরা চাকরির খোঁজে। কিন্তু পায়ের তলায় সকলের সরষে। ইচ্ছে করলেই বাইকে সাঁই সাঁই… নয়তো ব্যাকপ্যাক ঝুলিয়ে ট্রেনে। কোথায়? যথা ইচ্ছা তথা… গ্রুপ শুরুর সময়ে এটাই ছিল আমাদের অবস্থান। ওয়েবসাইট চালুর সময়ে দলে একটু নাড়াচাড়া পড়েছে। এক সদস্যের চাকরি সূত্রে মোঘলসরাইয়ে অধিষ্ঠান…আরেকজন শিবপুর বোটানিক্যাল গার্ডেনে। দলের সবচেয়ে বেঁটে […]

ভিনদেশি ভ্রমণ

আকাশের সীমান্ত। তাই নাকি!

স্যমন্তক ঘোষ আবার একটা সীমান্তের গপ্পো। একটা নয়, অনেকগুলো। পর্বে পর্বে পাড়া হবে, পড়া হবে। আকাশের কি সীমান্ত হয়? কবি নিশ্চয়ই আপত্তি করবেন। কিন্তু এক পাইলটদাদার কাছে শুনেছিলাম, আকাশের সীমান্তের গল্প। বিমান-বাস নিয়ে বাংলাদেশের আকাশ সীমান্তে ঢুকলেই নাকি মন ভাল হয়ে যেত তাঁর। এটিসি থেকে ভেসে আসত—‘‘আসসালামু আলেকুম। ঢাকা এটিসি আপনারে স্বাগত জানায়।’’ যাকে বলে […]

ইতিহাস ছুঁয়ে

ছুঁয়ে এলাম ইতিহাস

দীপশেখর দাস   ছুটি হল গত ৩১ ডিসেম্বর। বরাবরের জন্য। দীর্ঘ শিক্ষকতা জীবন শেষ হল ওই দিন। এবার অখণ্ড অবসর। মায়ের ছুটির আবেদনেও অফিসের ইতিবাচক সাড়া পেতেই প্ল্যানটা করে ফেললাম। আমরা চারজন। বাবা-মা-আমি আর সহোদরা। সঙ্গে সেজজেঠু আর ছোটদার বড় ছেলে। জঙ্গল ঘোরার নেশাটা আমার চিরকালের। রাজগীর নাকি পাহাড় আর জঙ্গলের মিশেল। ফলে, রোখ সাকে […]

খাদ্য সফর

মুখরোচক পর্ব

সৌগত পাল   পায়ের তলার সরষেগুলো সরে গিয়েছিল। এর কাজ ওর অসুবিধে। ফলে বেরনোই হয়নি বেশ কয়েকটা মঙ্গলবার। সরষেগুলো আবার পায়ের নীচে জড়ো করে দিল দীপকদা। গত মঙ্গলবার। গরমকালটা এখন ইলাস্টিকের মতো হয়ে গিয়েছে। নিজেকে টানতে টানতে বাড়িয়ে নিয়ে ডিসেম্বর পর্যন্ত পৌঁছেছে। গত মঙ্গলবার সকাল থেকে বেশ ঠান্ডা ঠান্ডা ভাব। দীপকদা প্রস্তাব দিল, ‘চল, তাহলে […]

খাদ্য সফর বিশেষ ভ্রমণ

অমৃত কড়াইয়ের সন্ধানে

দীপক দাস আক্ষেপটা পুরোপুরি রাবীন্দ্রিক। ওই ‘দেখা হয় নাই চক্ষু মেলিয়া/ঘর হতে শুধু দুই পা ফেলিয়া…’ মামলা। আমাদের ক্ষেত্রে অবশ্য কবিতিকার কয়েকটি শব্দ বদলাতে হবে। লিখতে হবে এমনভাবে, ‘চাখা হয় নাই জিহ্বা মেলিয়া/ঘর হতে শুধু মাইল কয়েক উজিয়া…রাবড়ি। আমাদের ঘরের এত কাছে ঘর ঘর রাবড়ি তৈরি হয়, সেটাই জানা ছিল না। অথচ আমরা ওই এলাকা […]

জলযাত্রা বিশেষ ভ্রমণ

জল-জঙ্গল আর জীবন

ইন্দ্রজিৎ সাউ ‘যথা ইচ্ছা তথা যা’ গ্রুপের মধ্যে সব থেকে বেশি পায়ের তলায় সরষে মনে হয় আমারই। একটা জায়গা ঘোরা শেষ হতে না হতেই নতুন কোথায় যাওয়া যায় তার খোঁজ শুরু করে দিই। গ্রুপে সৌমিত্র নামে একজন কাঁকড়াঝোর নিয়ে লিখেছিলেন। সেটা পড়ে, আর নেটে কাঁকড়াঝোর সম্পর্কে খোঁজখবর নিয়ে জঙ্গলের প্রেমে পড়ে গিয়েছিলাম। কিন্তু যাওয়া হয়নি। […]